আমরা অন্যের দোষ খুঁজতে ব্যস্ত৷

আমরা নিজের দোষ কখনোই দেখি না৷ বরং অন্যের দোষ খোঁজা নিয়ে ব্যস্ত থাকি৷ কেউ একটা ভুল করে ফেললে সেটাকে তিল থেকে তাল বানিয়ে তাঁর দোষ বর্ণনা করতে থাকি৷

এজন্যই হয়তো কাজী নজরুল বলেছেন,

আমরা সবাই পাপী; আপন পাপের বাটখারা দিয়ে; অন্যের পাপ মাপি।”

মানুষ হিসেবে দোষ-ত্রুটি কম বেশি সবারই আছে৷ কারো কম কারো বা বেশি৷ এরই ভীড়ে মহৎ মানুষ তাঁরাই, যারা দোষ স্বীকার করে নিজেকে শুধরে নেয়৷ এবং যারা দোষীকে ক্ষমা করে দেয়৷

যদি ভুল হয়ে থাকে আর সেটা কেউ ধরিয়ে দেয়, তখন ভুল শুধরে নেয়া বিনয়ী ব্যক্তির কাজ৷ আর কারো ভুল ধরিয়ে দেয়ার ক্ষেত্রেও বিনয়ী হতে হবে৷ যদি বিনয়ের সাথে ভুল ধরিয়ে দেন তবে তাকেও বিনয়ী পাবেন৷

কিন্তু কেউ ভুল করে বুঝার পরে বা কেউ ধরিয়ে দেয়ার পরে তাঁর ভুল স্বীকার না করে৷ বরং ভুলের উপর অটল থাকে এবং গলা উঁচু করে নিজেকে সঠিক প্রমাণ করতে ব্যস্ত হয় তবে তাকে অমানুষ বলাই সংগত৷ কারণ, একটা কথা প্রচলিত আছে_ মানুষ ভুল করে, কিন্তু শয়তান ভুলের উপর অটল থাকে৷ একই ভুল, তাঁর উপরে অস্বীকার করা, এই দুটোই মারাত্মক ভুল৷ ভুলের মধ্যে আরও বড় একটা ভুল৷

তবে এ কথাও ঠিক৷ আমরা অন্যের দোষ খুঁজতে ব্যস্ত৷ এমন অনেককে দেখেছি, যারা ওঁত পেতে থাকে ভুল ধরার জন্য৷ কারো ভুল পেলেই সমালোচনার ঝড় তুলে ফেলে৷ ভুল হওয়া স্বাভাবিক৷ বিনয়ের সাথে বললেই পারেন৷ চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়ার কি দরকার৷ তাঁর দোষ বলার কি দরকার৷ যদি তাঁর ভুল ধরে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে ব্যঙ্গ করেন তবে সেটাও মারাত্মক একটা ভুল৷

সব সময় অন্যের দোষ ত্রুটি নিয়ে ব্যস্ত না থেকে নিজের কাজ করুন এতে আপনারই উপকার হবে৷ আপনাকেই কেন ভুল ধরতে হবে সব সময়৷ আপনি কি ভুল করেন না?৷ যারা কাজ করে তারাই ভুল করে৷ আর যারা কাজই করে না৷ তাঁরা ভুল করবে কি করে৷

আরো পড়ুনঃ  এডসেন্স মনিটাইজেশন্স ইনকাম৷

কেউ আছে! সব সময় অন্যের দোষ ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে৷ কখন সে ভুলটা করবে আর কখন সে তাঁর ভুলটা ধরিয়ে দিবে৷ অথচ নিজের দোষটা কখনোই তার চোখে পড়ে না৷ নিজের দোষ কখনোই সে খুঁজে না৷ নিজের দোষটা কখনোই শুধরানোর চেষ্টা করেন৷ রবং উল্টো তর্ক লাগিয়ে দেয়৷

কেউ যদি ভুল করে, একজন সচেতন ব্যক্তি হিসেবে আপনি তার ভুলটা ধরিয়ে দিবেন৷ তাকে দোষ দিয়ে খোঁচা মেরে কথা বলার জন্য ভুল ধরবেন না৷ ভুল ধরে যদি তাঁর দোষ খোঁজ করেন তবে তর্ক বিতর্ক ছাড়া আর কিছুই হবে না৷ হিতে বিপরীত হবে৷

অপর দিকে ভুল করে নিজেকে সঠিক প্রমাণ করার চেষ্টাও তর্ক বির্তক ছাড়া আর কোন ফায়দা দিবে না৷ উভয়ই ক্ষতিকর৷

মানুষ মাত্রই ভুল করবে৷ তাই বলে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করা, ব্যঙ্গ করা তা নিয়ে সমালোচনা করা মারাত্মক ভুল৷ যে ভুল করেছে তাঁর চাইতে মারাত্মক ভুল৷ আপনি তাকে আদব, সম্মানের সাথে বিনীত ভাবে বলুন৷ দেখবেন সে ভুলটা স্বীকার করে নেবে এবং ভুলটা শুধরে নিবে৷

আমাদের ভুল স্বীকার করা এবং ভুল শুধরানোর চেষ্টা করতে হবে৷ ভুল তো মানুষই করবে৷ তাই বলে মানুষ ভুলের উপর অটল থাকতে পারে না৷

ক্ষমা চেয়ে নেওয়াই মানুষের জন্য কল্যাণকর৷ শয়তান ভুল করে এবং তার উপর অটল থাকে৷ আপনি ও যদি সেই কাজটা করেন তাহলে, আপনার ভিতরে আর শয়তান এর ভিতরে পার্থক্য কোথায়?৷

আমাদের সকলকে বিনয়ী হতে হবে৷ ক্ষমা করতে শিখতে হবে৷ ক্ষমা করাটাই উত্তম৷ এবং আমাদের সমঝোতা করতে হবে৷ যদি সমঝোতা করতে না পারি তবে আমাদেরই ক্ষতি৷ আমরা এই ভুল থেকে আর বের হতে পারব না৷ তাই এই ভুল থেকে বের হতে হলে অবশ্যই আমাদের সমঝোতা করতে হবে৷  শেষে বলব_ আমার লিখায়ও যদি ভুল থাকে, তবে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন৷

পোষ্টটি শেয়ার করুন....
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সম্পর্কে আরো দেখুন

guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
error: Content is protected !!
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x